Connect with us

দানবে পরিণত হয়েছে হেফাজতের আইটি ইউনিট

আইটি ইউনিট, হেফাজতে ইসলাম, জামাতে ইসলাম, হিজবুত তাহরীর, আনসার আল ইসলাম, হরকতুল জিহাদ, জামাতুল মুজাহেদিন বাংলাদেশ, হুজি

News

দানবে পরিণত হয়েছে হেফাজতের আইটি ইউনিট

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং ইউটিউব চ্যানেলে আধিপত্য বিস্তার করে এখন সরকার ও রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ভয়ংকর অপপ্রচার চালাচ্ছে গনতন্ত্র-বিরোধী হেফাজতে ইসলামের আইটি ইউনিট। মাদ্রাসার প্রায় দশ হাজার ছাত্র-শিক্ষকের পাশাপাশি জামাতে ইসলাম, হিজবুত তাহরীর, আনসার আল ইসলাম, হরকতুল জিহাদ (হুজি), জামাতুল মুজাহেদিন বাংলাদেশ  সহ হেফাজত সমমনা খেলাফত আন্দোলন এবং খেলাফত মজলিশ সদস্যরা এই আইটি ইউনিট পরিচালনা করছে বলে গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে।

সাম্প্রতিক সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোয় হেফাজতে ইসলাম কিংবা জঙ্গীদের অপকর্ম সম্পর্কে কোনো সংবাদ কিংবা মন্তব্য প্রতিবেদনের লিঙ্ক প্রকাশ করলেই জিহাদপন্থী এই আইটি ইউনিট সদস্যরা ঝাঁপিয়ে পড়ছে নানা ধরনের অশ্লীল মন্তব্যসহ। এমনকি এরা প্রধানমন্ত্রীর সম্পর্কেও নানা ধরনের নেতিবাচক মন্ত্রব্য করতেও দ্বিধান্তিত হচ্ছেন। এই দুষ্কৃতিকারী চক্র ফটোশপে ছবি বানিয়ে এমনকি ভিডিও নির্মাণ করেও সরকারের শীর্ষ নেতৃত্ব সম্পর্কে ক্ষমার অযোগ্য অপপ্রচার চালালেও এদের বিরুদ্ধে রহস্যজনক কারণে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কোনই ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে।

প্রায় পাঁচ সপ্তাহ আগে ব্লিটজ-এর পক্ষ থেকে পত্রিকাটির সম্পাদক নিজে ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশের কমিশনার বরাবরে একাধিক ইমেইল পাঠিয়ে ফেইসবুকে সরকারের বিরুদ্ধে ভয়ংকর অপপ্রচারের প্রমাণসহ তথ্য পাঠান। একই সাথে একজন সরকারী কর্মকর্তার ফেইসবুক আইডিতে হেফাজত নেতা মামুনুল হকের পক্ষে পোষ্ট এবং হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রতিমা ভাঙ্গার ভিডিওতে উল্লাস প্রকাশ করে পোষ্ট দেয়ার সুনির্দিষ্ট প্রমাণ দেয়া স্বত্বেও অপরাধীদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি ডিএমপি।

পুলিশসহ গোয়েন্দা সংস্থাগুলো সরকারের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলমান ভয়ংকর অপপ্রচারের ব্যাপারে ভীষণ উদাসীন বলেই প্রতীয়মান হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অথচ দেশের প্রচলিত আইনে এধরনের অপরাধের বিধয়ে পুলিশেরই ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা দায়ের করে অপরাধীদের গ্রেফতার করার কথা। কেনো এবং কোন কারণে হেফাজত ও জঙ্গীদের আইটি টিমসহ বিভিন্ন ব্যক্তির ফেইসবুকে সরকার বিরোধী অপপ্রচারের সুনির্দিষ্ট আলামত থাকা স্বত্বেও ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছেনা এটা খতিয়ে দেখা জরুরী বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন।

উল্লেখ্য ব্লিটজ-এর ফেইসবুক পেইজে যখনই হেফাজতে ইসলাম এবং জঙ্গী বিরোধী কোনো কন্টেন্ট শেয়ার হচ্ছে তখনই এগুলো হেফাজত এবং জঙ্গীদের আইটি টিম সদস্যরা ঝাঁকে-ঝাঁকে নোংরা কমেন্ট করছে। জঙ্গীদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ায় ব্লিটজ-কে গালাগালের পাশাপাশি এর সম্পাদক ও আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন জঙ্গীবাদ বিরোধী সাংবাদিক সালাহ উদ্দিন শোয়েব চৌধূরী’র “মাথার খুলি” তে গুলী করার মতো হুমকিও দেয়া হচ্ছে। যদিও কমেন্টকারীদের অধিকাংশই ফেইক আইডি ব্যবহার করছে কিন্তু এদের ইন্টারনেট সংযোগের আইপি এড্রেস চিহ্নিত করার মাধ্যমে এসব ভয়ংকর অপরাধীদের আইনের আওতাও আনা একেবারেই সোজা।

হেফাজতে ইসলাম ও জঙ্গী গ্রুপগুলোর সম্মিলিত আইটি গ্রুপ কিংবা সাইবার জিহাদি ফ্রন্ট সম্পর্কে কাউন্টার টেরোরিজম বিশেষজ্ঞদের মন্তব্য হলো, এসব এখনই নির্মূল করা না গেলে অচিরেই এই সাইবার সন্ত্রাস দেশের জন্যে মারাত্মক হুমকি হয়ে দাঁড়াবে। তাঁরা বলেন, সরকারের উচিৎ কালবিলম্ব না করে এসব নির্মূলে ব্যবস্থা নেয়া।

 Please follow Blitz on Google News Channel

Contents published under this byline are those created by the news team of WeeklyBlitz

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More in News

Advertisement

Trending

Newsletter Subscription

Advertisement

Facebook

Advertisement

More…

Latest

Advertisement
To Top